ফ্রান্সে বাংলাদেশীদের উপর ভিনদেশিদের অত্যাচার নির্যাতনে আতংকিত প্রবাসীরা !

0
2469
ইনসেটে ফ্রান্সে ভিনদেশি নাগরিকদের ছিনতাই ও নির্যাতনের শিকার প্রবাসী বাংলাদেশিরা

▪︎ফ্রান্স বাংলা ডেস্ক: মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণে  যখন সমগ্র ফ্রান্সে সরকার লকডাউন ও জরুরী অবস্থা জারি করেছে তখন  নীরব নিস্তব্ধ হয়ে পড়া ফ্রান্সের বিভিন্ন শহরে বেড়েছে চুরি ছিনতাইয়ের মতন জঘন্যতম অপরাধ  ।

বর্তমানে  লকডাউনের পরিবর্তে  সরকার গত ১৫ই ডিসেম্বর রাত ৮ টা  থেকে ভোর  ৬ টা পর্যন্ত  জরুরী অবস্থা জারি করেছে। যা পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে । আর এই সুযোগে আফ্রিকান বিভিন্ন দেশের নাগরিকগণ জন মানব শূন্য রাস্তা ঘাটে বেপরোয়া হয়ে চুরি  ছিনতাই ও শারীরিক নির্যাতন করছে পথচারীদের । তাদের এই ছিনতাইয়ের প্রধান টার্গেট বাংলাদেশী প্রবাসীরা । এর প্রধান কারণ ফরাসি ভাষা না জানা এবং নিজেদের মধ্যে একতা না থাকা ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়,  গত এক মাসে আফ্রিকান বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের দ্বারা অনেক বাংলাদেশি প্রবাসী ছিনতাই ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন । তাদের বেশিরভাগই কাজ থেকে বাসায় ফেরার পথে এসব ছিনতাই কারীর কবলে পড়েন ।

এদের মধ্যে মঞ্জুরুল মিঠু নামে এক প্রবাসী porte de pantin ট্রাম স্টেশনের পাশে স্কুটার দিয়ে মাল ডেলিভারি দেওয়ার সময় ২ আফ্রিকান ছেলে  এসে তাকে বেধর মারপিট করে  তার স্কুটার ছিনিয়ে নিয়ে যায় । পরে লোকজনের সহযোগিতায় অ্যাম্বুলেন্স ফোন করে হসপিটালে গিয়ে চিকিৎসা করান । গত ৪ জানুয়ারি মোহাম্মদ রকিবুল ইসলাম নামে আরো এক বাংলাদেশী কাজ থেকে বাসায় ফেরার পথে  কেতসীমা  ১৭০ নাম্বার  বাস স্টপের সামনে ৩ জন আফ্রিকান আরবী এসে তাকে মারধর করে এতে তিনি চিৎকার দিলে ওরা চলে যায় । কিন্তু পাশে থাকা ২ জন বাংলাদেশি দাঁড়ি সেই দৃশ্যটি দেখছিল ।

এছাড়া gare sarcelles ও সেন্ডেনিস এলাকাতে প্রায় এরকম ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে । যার শিকার বেশির ভাগই প্রবাসী বাংলাদেশিরা !

এসব  ছিনতাই ও হামলা নির্যাতনের শিকার হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় গিয়ে অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযোগ লিখে পরবর্তীতে কোন আইনি পদক্ষেপ নেয় না বলে অনেক বাংলাদেশীর অভিযোগ  ।

আবার ভাষা গত সমস্যা থাকার কারণে অনেক প্রবাসী ছিনতাই ও নির্যাতনের শিকার হয়েও থানায় অভিযোগ করেননি । এছাড়া এক জনকে মারধর করলে আরো কয়েকজন দাঁড়িয়ে  তামাশা দেখার কারণে নিজেদের মধ্যে একতা না থাকার ফলে ভিনদেশিরা বাংলাদেশীর উপর খুবই অত্যাচার নির্যাতন দিন কে পর দিন করে যাচ্ছে ।

এছাড়া বিভিন্ন ফুটপাতে ব্যবসা করার ফলে অনেক সময় এসব অত্যাচার নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন বাংলাদেশীরা ।

ফ্রান্সে বাংলাদেশীদের উপর অত্যাচার নির্যাতন দিন দিন বেড়েই  যাওয়াতে আতংকের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন প্রবাসীরা । বিশেষ করে যারা রাতের বেলা ডেলিভারি কাজ করেন অথবা যারা রাতে কাজ শেষে বাসায় ফিরেন তারাই সবচেয়ে বেশি আতংকিত।

বাংলাদেশিদের উপর ভিনদেশিদের অত্যাচার নির্যাতনের প্রতিবাদ জানিয়ে বিভিন্ন সময় বাংলাদেশ কমিউনিটির পক্ষ থেকে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে স্মারক লিপি প্রদান ও প্রতিবাদ সভা এবং মানব্বন্ধন করলে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি ।

এ ব্যাপারে কমিউনিটি নেতা ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নুরুল আবেদিন “ফ্রান্স বাংলাকে” দেয়া এক সাক্ষাৎকারে  তিনি বলেন- কিছুদিন পর পর বাংলাদেশীরা ভিনদেশিদের হামলা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন । যদি এখন এসব ছিনতাই বা হামলার বিরুদ্ধে সবাই মিলে একত্রে প্রতিবাদ না করি তাহলে সামনের দিনগুলোতে ফ্রান্সে বাংলাদেশীদের নিরাপদে বসবাস করা খুবই কঠিন হয়ে পড়বে।  এ সময় তিনি বাংলাদেশী সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে এক হয়ে এসব অত্যাচার নির্যাতন  ও ছিনতাইয়ের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেওয়ার আহ্বান জানান ।

ছাতক দোয়ারা জনকল্যাণ পরিষদ ফ্রান্সের সভাপতি মনোয়ার হোসেন মুজাহিদ বলেন – একজন বাংলাদেশীকে ভিন দেশীয় নাগরিক ছিনতায়ের চেষ্টা বা নির্যাতন করলে পাশে থাকা অন্য বাংলাদেশীদের এগিয়ে আসতে হবে এবং সবাই মিলে এসব ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে । এবাবে সম্ভব হবে এ সব ছিনতাইকারীদের কবল থেকে রক্ষা পেতে ।

ফ্রান্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে বাংলাদেশীদের উপর ভিনদেশি নাগরিকের   অত্যাচার নির্যাতনের  বিষয়ে  স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বাংলাদেশী প্রবাসীদের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন কিনা আমাদের জানা নেই ।

কাজ থেকে সবাই বাসায় ফেরার পথে জন মানব শূন্য রাস্তা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন । সতর্ক থাকুন সচেতন হোন এবং ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন ।

ফ্রান্স বাংলা/ ০৫/০১/২০২১

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here