ফ্রান্সে প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা এক বাংলাদেশীর আত্মহত্যা !

0
5456
ফ্রান্সে প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা এক বাংলাদেশীর আত্মহত্যা !

▪︎ফ্রান্স বাংলা ডেস্ক: বিশ্ব ব্যাপি ছড়িয়ে পরা করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সারা বিশ্বে ব্যবসা- বানিজ্যে ধস নেমেছে । বন্ধ হয়ে গেছে কল কারখানা রেস্টুরেন্টসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান । আর তার প্রভাব পড়েছে অন্যান্যদের মত  বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসি বাংলাদেশী রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের উপর । বিশেষ করে ইউরোপে বসবাসকারী বাংলাদেশীর মধ্যে তার প্রভাব খুবই বেশি । বর্তমানে ইতালি, পর্তুগাল, স্পেন, ইংল্যান্ড  ও ফ্রান্সে করোনার প্রভাব খুবই বেশি ।

স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ট দেশে চলছে লকডাউন ও কার্ফু  । এতে রেস্টুরেন্ট সহ বন্ধ রাখা হয়েছে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান । তাতে অন্যান্য দেশের অভিবাসীদের পাশা পাশি কাজ হারিয়েছেন হাজার হাজার বাংলাদেশী । ফলে কর্মহীন এসব প্রবাসীরা পড়েছেন খুবই আর্থিক সংকটের মধ্যে । দেশে থাকা তাদের পরিবার পরিজন এসব কর্মহীন প্রবাসীদের বিভিন্নভাবে চাপ দিচ্ছেন টাকা পয়সা  দেওয়ার জন্য । অনেকে দামি মোবাইল ফোন সহ বিভিন্ন জিনিসের আবদার করছেন ।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসীদের বড় একটা অংশ বিভিন্ন দেশ হয়ে অবৈধভাবে ইউরোপে প্রবেশ করেছেন  । এতে অনেকে সংশ্লিষ্ট দেশে বৈধতা পেলেও বড় একটা অংশ এখনও বৈধ কাগজপত্র পাননি । ফলে অনিয়মিত ভাবে বসবাস করছেন  এসব দেশে । অনিয়মিত প্রবাসীদের বড় একটা অংশ এসব দেশে রয়েছেন যাদের প্রবাসে ৮ -৯ বছর হয়ে গেছে কিন্তু এখনও বৈধতা পাননি । এতে অনেকে মানসিক ভাবে ডিপ্রেশন ভুগছিলেন । তার মধ্যে দেশ থেকে টাকা পয়সা দেওয়ার তাগিদ দেওয়াতে মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে স্টোক সহ অনেক প্রবাসী ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশে অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে মৃত্যুবরণ করেছেন ।

তাদের মধ্যে একজন  ফ্রান্স প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা  বাংলাদেশী গত ২২ শে জানুয়ারী  আত্মহত্যা করেছেন ।

বিভিন্ন জনের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা গেছে বাংলাদেশের কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার বাসিন্দা “মনির উদ্দিন” (ছন্দ নাম) দীর্ঘ দিন ধরে ফ্রান্সে বসবাস করে আসছেন ।

কিভাবে তিনি আত্মহত্যা করেছেন সেটা উল্লেখ করা না গেলেও জানা গেছে পারিবারিক মানসিক চাপ থেকে তিনি বেশ কিছু ধরে ডিপ্রেশনে ভোগ ছিলেন । পরবর্তীতে গত ২২ শে জানুয়ারী আত্মহত্যা করে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নেন ।  তিনি ফ্রান্সের Aulnay Sous Bois তে বসবাস করতেন।

ফ্রান্সে বাংলাদেশ কমিউনিটি জনপ্রিয় সামাজিক সংগঠন (bcf)  এর প্রেসিডেন্ট এমডি নূর ফ্রান্স বাংলা জানান- কিছুদিন আগে ফ্রান্সে এক বাংলাদেশী আত্মহত্যা করে মারা গেছেন শুনেছি । যা খুবই দুঃখজনক । পরিবার থেকে দেয়া মানসিক চাপ থেকে তিনি বেশ কিছুদিন ডিপ্রেশনে ভোগ ছিলেন । পরবর্তীতে তিনি আত্মহত্যা করেন ।  এসময়  দেশে থাকা প্রবাসীদের পরিবারের সদস্যদের এ বিষয়ে আরো সতর্ক হতে তিনি অনুরোধ জানান ।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ কমিউনিটি নেতা ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নুরুল আবেদিন “ফ্রান্স বাংলা নিউজকে” দেয়া এক সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন- করোনা ভাইরাস মহামারীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্যবসা- বানিজ্য  বন্ধ থাকায়  প্রবাসীরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন । বিশেষ করে ফ্রান্স সহ ইউরোপের দেশগুলোতে তা খুবই কঠিন অবস্থার মধ্যে সময় পার করছেন প্রবাসীরা । কাজ কর্ম না থাকায় যেমন আর্থিক সংকটের মধ্যে পড়েছেন , তেমনি অনেকের বৈধ কাগজপত্র না থাকাতে মানসিক ডিপ্রশনে ভুগছেন । এর মধ্য দেশে  টাকা পয়সা ও বিভিন্ন জিনিস পাঠাতে প্রিয়জনেরা বিভিন্ন ভাবে আবদার করে থাকেন । এতে এসব প্রবাসীদের মানসিক ডিপ্রশনের মাত্রা আরো বেড়ে যাই । ফলে অনেকেই স্ট্রোক করে মারা যান । এমনকি অনেকে  আত্মহত্যা পর্যন্ত করেছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি ।

তিনি আরো বলেন – দেশে থাকা প্রবাসীদের পরিবারের সদস্যদের এ ব্যাপারে খুবই সতর্ক হতে হবে ।
এ সময় তিনি কাজ কর্ম না থাকা প্রবাসীদের মানসিকভাবে চাপ প্রয়োগ করা থেকে বিরত থাকতে দেশে থাকা প্রবাসীদের পরিবারের প্রতি অনুরোধ জানান ।

পরিবার পরিজন ছেড়ে দেশের বাহিরের থাকা প্রবাসীদের সাথে ভাল ব্যবহার করুন । তাদেরকে মানসিক চাপ প্রয়োগ করা থেকে বিরত থাকুন ।

শান্তি ও নিরাপদ হোক ,
সকলের প্রবাস জীবন ।

ফ্রান্স বাংলা/ ২৬/০১/২০২১

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here