ছাতকের ঝিগলীতে আবারো অবৈধ বন্দুকের গুলিতে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ

0
286
ছাতকের ঝিগলীতে অবৈধ বন্দুকের গুলিতে গুলিবিদ্ধ কয়েকজন এবং ইনসেটে ডানে অভিযুক্ত ব্যক্তির গুলি করার দৃশ্য

▪︎ছাতক প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের ছাতক থানার ভাতগাও ইউনিয়নের ঝিগলী খঞ্চনপুর গ্রামে অবৈধ বন্দুক দিয়ে  সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, ঝিগলী গ্রামের একাধিক মামলার  আসামী ,হাছনাত ও রুমেন জামিনে মুক্ত হয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২ মার্চ দিবাগত রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে অবৈধ বন্দুক দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে গুলি চালায়। এসময়  অনিল নমশূদ্র (৫১) ,আব্দুর রহিম (৫৮),রাজিক মিয়া (১৯) সহ প্রায়  ৫ জন গুলিবিদ্ধ হন  ।

এলাকা সূত্রে জানা গেছে একটি ফৌজাদরী মামলাকে কেন্দ্র করে ১ম পক্ষ মাশুক মেম্বার  ও ২য় পক্ষ হাছনাত উভয় ই মামলা দায়ের করেন । এতে মাশুক মেম্বারের দায়ের কৃত মামলায় হাছনাত র‍্যাবের হাতে ২০২০ সালের  ৩১শে ডিসেম্বর গ্রেফতার হন এবং রিমান্ড সহ দীর্ঘ দিন কারাগারে ছিলেন । অন্য আসামি দের মধ্য থেকে সাবাজ মেম্বারের ছেলে রুমেন ও দীর্ঘ দিন কারাগারে থাকার পরে তিনি গত  ১৪ই ফেব্রুয়ারি জামিনে মুক্তি পান ।

জামিনে বেরিয়ে আসার পরে আবারো কারাগারের কষ্ট সহ্য করতে না পেরে তার প্রতিশোধ হিসেবে আবারও প্রতি পক্ষ কে গালাগাল করে এবং এলোপাতাড়িভাবে এলাকার সাধারণ মানুষদের কে লক্ষ্য করে  একাধিক গুলি ছুরে । এতে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকজন ও পথচারী সহ  গুলিবিদ্ধ হয়ে অনেকেই  আহত হন ।

জাহিদ পুর পুলিশ ফাঁড়ি এই সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাহিদ পুর ফাঁড়ির ইনচার্জ দিদার উল্লাহ। এ বিষয়ে ছাতক থানার ওসির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা  খবর পেয়েছি ঘটনাস্থলে আমাদের পুলিশ ছিল। তবে থানায় এখনো কোনো ধরনের অভিযোগ করা হয়নি ।  অভিযোগ পেলে  তাৎক্ষণিক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে  বলে তিনি জানিয়েছেন।

এলাকাবাসীর দাবি কয়েকদিন পর পর  অবৈধ বন্দুকদিয়ে ত্রাস সৃষ্টি কারি সন্ত্রাসী ও মামলাবাজ হাছনাত ,রুমেন,রকিবদের বিচারে আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির মাধ্যমে এলাকায় শান্তি ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন  ।